বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০১:০৩ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
সালথায় দুই ইয়াবা ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ দীর্ঘ ২৮ বছর পর সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হলো ছাত্রদলের নতুন নেতৃত্ব: সভাপতি খোকন আর সম্পাদক শ্যামল মোটর সাইকেলে তুলে নিয়ে শ্রমিককে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন বাজারে আসছে 6000mAh ব্যাটারির স্যামসং ফোন, দাম সাধ্যের মধ্যেই প্রাথমিক শিক্ষার পড়ুয়াদের ৬৫ শতাংশ বাংলাই ঠিকমতো জানে না মেহেরপুরে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন ৩ নারীসহ আল্লাহর দলের ৮ সদস্য আটক নবীগঞ্জে বিপুল পরিমাণ অতিথি পাখিসহ ৫ পাখি শিকারী র‌্যাবের খাঁচায় বন্দি, ভ্রাম্যমান আদালতে ৪ মাসের জেল ‘Howdy, Modi’ meeting in Houston Trump & Modi Joint Rally? নবীগঞ্জ উপজেলা সৎসঙ্গের উদ্যোগে ঠাকুর অনুকুল চন্দ্রের ১৩২ তম শুভ আর্বিভাব দিবস পালন ভোলায় ৫০বছরের পুরনো কবরে অক্ষত লাশ!

সংখ্যালঘুদের মারপিট করে জমি দখল ও দেশ ত্যাগের হুমকি

সংখ্যালঘুদের মারপিট করে জমি দখল, দেশ ত্যাগের হুমকি, ভারতে যাওয়ার হুমকি, হিন্দু সম্পত্তি দখল, সম্পত্তি দখল, হিন্দু বাড়ী দখল, হিন্দুদের সম্পত্তি দখল

গোপাল কুমার, কালীগঞ্জ থেকে ফিরে: সাতক্ষীরার কালিঞ্জে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের পৈতৃক জমি জবর দখল, মৎস্য ঘেরে লুটপাট ও মারপিটের অভিযোগ পাওয়াগেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সকালে কালিগঞ্জ উপজেলার থালনা গ্রামে। চরম নিরাপত্তাহীতায় থালনা গ্রামের কয়েকটি সংখ্যালঘু পরিবারের লোকজন।

আশাশুনি উজেলা যুব মহিলা লীগের সভানেত্রী সীমা সিদ্দিকীর নেতৃত্বে সন্ত্রাসী শাহাজান সরদার এর ভাড়াটিয়া বাহিনী নুরুজ্জামান সরদার, খোরশেদ সরদার, নাজু সরদার, সহ ৪০/৫০জন সন্ত্রাসীরা রেজাউল ভাড়া করে মঙ্গলবার রাত্রে ঘেরে মাছ লুটপাট করে নিয়ে যায়। এবং পরদিন বুধবার সকালে তারা জমি পাবে বলে উক্ত বাহিনী নিয়ে মৎস্যঘের লুটপাট, বাসার আসবাবপত্র নিয়ে যায়। এবং ঘরের মধ্যে দিয়ে বাধ নিয়ে জবর দখলে করেতে থাকে। এবং বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি প্রদর্শন ও দেশ ছাড়ার হুমকি প্রদান করতে থাকে। এমনকি তাদের কাজে বাধা প্রদান করছে জীবনে শেষ করে দেবে বলেও দেশীয় অস্ত্র, উচিয়ে ভয় দেখিয়ে দিনের বেলা প্রকাশ্যে মাছ লুট পাট করে নিয়ে চলে যায়।সাতক্ষীরার কালিঞ্জে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের পৈতৃক জমি জবর দখল, মৎস্য ঘেরে লুটপাট ও মারপিটের অভিযোগ

এঘটনার পাশ্ববর্তী নারায়ন সরকার বাদী হয়ে ১১/০৭/১৯ তারিখে সাতক্ষীরা বিজ্ঞ আমলী ০২ নং আদালত সিআরপি ৭৭/১৯ নং একটি মামলা দায়ের করেন। কিন্তু বিপত্তী সেখানে আরও বেড়ে যায়। মামলার স্বাক্ষী আমজাদ হোসেন (৬০) কে অত্র ঘটনায় স্বাক্ষী প্রদান করেছেন তাই ক্ষিপ্ত হয়ে স্বাক্ষী আমজাদ হোসনে উক্ত রেজাউল, শাহাজান ও নুরুজ্জামান মিলে বেধড়ক মারপিট করে আহত করে। মামলার অন্যান্য স্বাক্ষীদের ও স্বাক্ষী না দেওয়ার জন্য বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি প্রদান করে যাচ্ছেন। এমনকি স্বাক্ষী দিলে নারায়নের মত অবস্থা হবে এবং দেশ ছেড়ে ভারতে চলে যেতে হবে বলেও প্রকাশ্যে বলে বেড়াচ্ছেন রেজাউল বাহিনী।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, গোবিন্দ কাটি গ্রামের মুকুল বিশ্বাস এর দীঘ ৪০ বছরের অধিককাল ভোগদলীয় কওে আসছেন। পরবর্তীতে পাশ্বর্তী থালনা গ্রামের মৃত সুখময় সরকারের পুত্র নারায়ন চন্দ্র সরকার দীর্ঘ ১৫ বছরের অধিক সময় ধরে ইজারা (হারী) নিয়ে শান্তিপুর্ণভাবে মৎস্য ঘের করে আসছে। কিন্তু এবার ঘেরে মাছ ভাল হলে চোখ পড়ে পাশ্ববর্তী বারোদগা গ্রামের মৃত শহর আলী সরদারের পুত্র রেজাউল সরদারের। তাই দীর্ঘদিন ধরে ঘের জবর দখলের পায়তারা জন্য তিনি আশাশুনি উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভানেত্রীর উপস্থিতিতে ১০/০৭/১৯ তারিখে ঘের জবর দখল করে আসেন শাহাজান বাহিনী নিয়ে, বলে মুকুল বিশ্বাস ও নারায়ন সরকার কান্নাজড়িত কন্ঠে আমাদের এ প্রতিবেদনকে জানান। এসময় উপস্থিত জাহানারা খাতুন, আমজাদ হোসেন, সুপ্রিয়া সরকার, সহ একাধিক ব্যক্তি ঘটনার কথা সত্যতা নিশ্চিত করেন।

এ ব্যাপারে মামলার বিবাদী অর্থাৎ আসামী শ্রেনী ভুক্ত রেজাউল এর নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান ‘ আমি জমি পার তারা দিচ্ছেনা তাই আমরা লোকজন দিয়ে দখল করতে গিয়ে ছিলাম। তবে তিনি কি সুত্রে জমি পাবেন এমন প্রশ্নের জবাদে তিনি জানান আমি থালনা গ্রামের দীলিপ সরকারের স্ত্রী নমিতা রাণীর নিকট থেকে ৩৩ শতক জমি ২০১২ সালে ক্রয়ে করেন। এবং নমিতার ভোগদখলীয় ৩৩ শতক জমি দলিলে তফশীলের উল্লেখিত ও চৌহদ্দীস্থ জমিতে জমিতে দখল বুঝে দেন । সেই দখল মোতাবেক রেজাউল বাদী ঘরে তৈরী ও পুকুর কেটে বসবাস করে আসছেন বলে স্বীকার করেন। কিন্তু বিচার যাহাই হোক তাল গাছ আমার।

এমনকি ভয়-ভীতির কারণে বাদী হয়ে বিজ্ঞ সাতক্ষীরা অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেষ্ট এর আদালতে ১৮৩৬/১৭নং মামলা দায়ের করিলে আদালয়ের রায়ে বলেন, ‘দেখলাম উভয় পক্ষকে শোনানো হলো। ২য় পক্ষের লিখিত ও বক্তব্যের আলোকে প্রতীয় হয় যে, নাশিলী সম্পত্তি উভয়ের দখলে রয়েছে। উভয় পক্ষ স্ব স্ব দখল বজায় রেখে শান্তিপুর্ণ সহাবস্থান করবেন।

আদালত এই আদেশ দিলেও রেজাউল সরকার কোন আইন আদালত না মেনে তিনি শাহাজান বাহিনী নিয়ে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জমি জবর দখল, ঘেরের মাছ লুট পাট করে নেওয়া, মারপিট, ভীতি প্রদর্শন, দেশ ছাড়ার হুমকি অবাহত রেছেন। এ ব্যাপারে ভুক্তভুগি পরিবার গুলো প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

All rights reserved © -2019
IT & Technical Support: BiswaJit