বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:২৮ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
দীর্ঘ ২৮ বছর পর সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হলো ছাত্রদলের নতুন নেতৃত্ব: সভাপতি খোকন আর সম্পাদক শ্যামল মোটর সাইকেলে তুলে নিয়ে শ্রমিককে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন বাজারে আসছে 6000mAh ব্যাটারির স্যামসং ফোন, দাম সাধ্যের মধ্যেই প্রাথমিক শিক্ষার পড়ুয়াদের ৬৫ শতাংশ বাংলাই ঠিকমতো জানে না মেহেরপুরে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন ৩ নারীসহ আল্লাহর দলের ৮ সদস্য আটক নবীগঞ্জে বিপুল পরিমাণ অতিথি পাখিসহ ৫ পাখি শিকারী র‌্যাবের খাঁচায় বন্দি, ভ্রাম্যমান আদালতে ৪ মাসের জেল ‘Howdy, Modi’ meeting in Houston Trump & Modi Joint Rally? নবীগঞ্জ উপজেলা সৎসঙ্গের উদ্যোগে ঠাকুর অনুকুল চন্দ্রের ১৩২ তম শুভ আর্বিভাব দিবস পালন ভোলায় ৫০বছরের পুরনো কবরে অক্ষত লাশ! উন্নত দেশ গড়তে ব্যবসায়ীদের অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে -বাণিজ্যমন্ত্রী

ফুলবাড়ীতে ব্রিজ দেবে যাওয়ায় ভোগান্তিতে দুই গ্রামের মানুষ

ব্রিজ

রতি কান্ত রায়, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের চর বড়লই ওয়াপদা বাজার সংলগ্ন একটি ব্রিজ দেবে যাওয়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছে চর বড়ভিটা ও চর বড়লই গ্রামের প্রায় ১০ হাজার মানুষ।

বর্ষায় ব্রিজটি পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় কলাগাছের ভেলা এখন গ্রাম দু’টির মানুষের একমাত্র ভরসা। ২০১৭ সালের ভয়াবহ বন্যার প্রবল ¯্রােতে ব্রিজটি প্রায় ৮ ফুট দেবে যায়। ব্রিজটি দেবে যাওয়ার কারণে শুষ্ক ও বর্ষা উভয় মৌসুমে চরম ভোগান্তির কবলে পড়ছে এখানকার মানুষ। মধ্য চর বড়ভিটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মধ্য বড়ভিটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও চর বড়লই মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদেরও পড়তে হচ্ছে চরম ভোগান্তিতে। শুষ্ক মৌসুমে এই ব্রিজের ওপর দিয়ে কোন যানবাহন পারাপার না হওয়ায় পায়ে হেঁটেই তাদের বিদ্যালয়ে যেতে হয়।

বর্ষার সময় ব্রিজটি পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় তাদের বিপদ আরও বেড়ে যায়। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কলাগাছের ভেলায় চড়ে তাদের পারাপার হতে হয়। বিশেষ করে ছোট শিশু শিক্ষার্থীদের পারাপার চরম ঝুঁকিপূর্ণ। তাই অনেক বাবা মা এ সময় তাদের সন্তানদের বিদ্যালয়ে যাওয়া বন্ধ করে দিতে বাধ্য হন। বড়ভিটা ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড চর বড়লই গ্রামের সাবেক মেম্বার নজরুল ইসলাম (৫০) জানান, ব্রিজটির কারণে দু’টি গ্রামের মানুষ তাদের উৎপাদিত কৃষি পণ্যের ন্যায্য মূল্য পায় না। কারণ নিকটবর্তী বড়ভিটা, বড়লই, খড়িবাড়ী ও ফুলবাড়ী বাজারে যাওয়ার এটিই গ্রাম দু’টির একমাত্র পথ।

গ্রামে সরাসরি কোন যানবাহন প্রবেশ করতে না পারার কারণে কৃষি পণ্য বাজারজাত করা যেমন কষ্ট সাধ্য তেমনি ব্যয়বহুল। চর বড়লই গ্রামের সোলজার আলী (৪০) জানান, বড়ভিটা বড়লইয়ের মানুষ এই পথে কাউয়াহাকা ফাঁড়ি ঘাট দিয়ে কুড়িগ্রাম সদরের কাঠালবাড়ী হাটে পণ্য বিকিকিনি করতে যেত। ব্রিজটি দেবে যাওয়ায় এখান পাইকার আর কৃষকরা কাঠালবাড়ী হাটে যেতে পারছেন না।

চর বড়ভিটা গ্রামের দন্ত চিকিৎসক আব্দুর রহমান (৫০) জানান, এখানকার গ্রাম দু’টির মানুষের দুর্দশার কারণ এই ব্রিজটি। এটি ভেঙ্গে ফেলে এখানে নতুন করে ব্রিজ অথবা বাঁধ নির্মাণ করলে গ্রাম দু’টিতে প্রাণ চাঞ্চল্য ফিরে আসবে। চর বড়লই গ্রামের নূর হোসেন (৬০), আমজাদ আলী (৫০), কাশেম আলী (৫২) ও আকবর আলী (৪৫) জানান, ব্রিজটির কারণে আমাদের কষ্টের সীমা নাই। তাই দ্রুততম সময়ের মধ্যে এটি ভেঙ্গে ফেলে এখানে বাঁধ নির্মাণের দাবি জানান তারা।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

All rights reserved © -2019
IT & Technical Support: BiswaJit