মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ০৫:০৮ অপরাহ্ন

বেদের আলোকে আদর্শলিপি প্রকাশ ও গুরুকুল প্রতিষ্ঠার ইচ্ছে বৈদিক কণ্ঠের

বৈদিক কণ্ঠ

নিজস্ব সংবাদদাতা, ননীভূষণ অধিকারীঃ  সনাতন ধর্মের সংবিধান পবিত্র বেদের আলোকে (আদর্শলিপি) বইটি প্রকাশ করে গুরুকুল প্রতিষ্ঠার ইচ্ছে বৈদিক কণ্ঠ নামে একটি প্রতিষ্ঠান।

আজ ২২ জুন শনিবার সকাল ১০ ঘটিকায় রাজধানীর স্বামীবাগস্থ  বৈদিক কন্ঠের অফিসে বৈদিক শিক্ষা, যোগ ব্যায়াম এবং যুব সমাজের আদর্শ গঠন শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা এ অংগীকার ব্যক্ত করেন।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, বাঙালি বাড়িতে শিশুদের প্রথম পাঠের বই হিসেবে শতাধিক বছরব্যাপী প্রচলিত ছিল সীতানাথ বসাকের আদর্শলিপি। আজকাল সেই শিশুপাঠ্য থেকে হারিয়ে গেছে বইটি। বইটি ছিল শিশুদের সরল বর্ণ পরিচয়ের জন্য অপরিহার্য। শুধু বর্ণ পরিচয় নয়, আদর্শ চরিত্র গঠনেও ছিল সহায়ক। কিন্তু আজকাল সেই বইটি আর খুজে পাওয়া যাচ্ছেনা।

বক্তৃতায় দি নিউজ পত্রিকার উপদেষ্টা সম্পাদক বাবু ধীরেন্দ্র নাথ বারুরী বলেন যে আদর্শ শিক্ষার অভাবে জাতি গঠনে আমরা হিমসিম খাচ্ছি তাই আমাদের সকল মত পথের উর্ধ্বে থেকে বেদের আলোকে শিশুদের জ্ঞান চর্চার মাধ্যমে আমাদের আদর্শ সমাজ গড়ে তুলতে হবে এবং তার জন্য বিভিন্ন দিক নির্দেশনা তুলে ধরেন।

বাবু কৃষ্ণ চন্দ্র দাস তার বক্তৃতায় আগামি প্রজন্মকে শিক্ষা সংস্কৃতির সাথে তাল মিলিয়ে এবং নিরোগ দেহ সুস্থ মনের মানসিকতা তৈরির সার্থে সংস্কৃত বর্ণমালা পরিচয় এবং যোগ ব্যায়ামের উপর গুরুত্ত দেন।

বাবু ভুপেন্দ্র মজুমদার তার বক্তৃতায় বেদ শিক্ষার উপর গুরুত্ত দেন এবং বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন এবং বৈদিক কণ্ঠকে ১০০০ বই প্রিন্ট করে সহায়তা করার প্রতিশ্রুতি দেন। দি নিউজ ডট কম এর সম্পাদক প্রমিথিয়াস চৌধুরী তার বক্তৃতায় বলেন সংস্কৃত বর্ণ মালা (দেব নাগরী লিপি) যেমন উন্নত বিশ্বের সাথে ভাষার তাল মিলাবে এবং ধর্মীয় অজ্ঞতা দুরীকরনে সহায়ক হবে তেমনি যোগর  য়াম তাদের ঔষধ বিহীন নিরোগ দেহ ও সুস্থ দেহের অধিকারী করে গড়ে তুলবে।

আনন্দম ইনস্টিটিউট অব যোগ এন্ড যৌগিক হসপিটালের পরিচালক যোগী পি কে বি প্রকাশ (প্রমিথিয়াস চৌধুরী) আরো বলেন আইনি প্রক্রিয়ায় দোষিকে শাস্তি দেয়া যায় কিন্তু মনের পরিবর্তন ঘটানো যায়না । যোগের মাধ্যমে মানুষের মনের পরিবর্তন ঘটানো সম্ভব আর মানুষের মন ঠিক হলে তাকে দিয়ে জোর করেও সন্ত্রাস করাতে পারবেন না

বৈদিক কণ্ঠের উদ্যোগ কে স্বাগত জানিয়ে আনন্দম্‌ ইনস্টিটিউট অভ যোগ এণ্ড যৌগিক হস্‌পিটালের পরিচালক নিঃস্বার্থ ভাবে ১০০০ বই প্রিন্ট করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেন এবং সার্বিক  সহোযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে শিক্ষা সংস্কৃতির পাশে থাকবেন বলে আশ্বাস দেন।

শ্রীকান্ত দাস তার বক্তৃতায় বলেন আমরা সংস্কৃত (দেব নাগরী লিপি)  শিক্ষায় অজ্ঞতার কারনে বিভিন্ন পদে পদে বাধার সৃষ্ঠি হচ্ছে তাই গুরু কুল প্রতিষ্ঠার পাশা পাশি সমস্ত গুরুকুলের শিক্ষকদের সংস্কৃত শিক্ষা এবং যোগের উপরে ট্রেনিং করানো হবে যাতে শিশুরা খুব সহযেই সংস্কৃত বর্ণমালা আয়ত্ত্ব করতে পারে । সেই সাথে হিন্দি শিক্ষার উপরেও উপস্থিত সকলে জোর দিতে বলেন।

আগামি ১৩/০৭/১৯ ইং প্রথম ট্রেনিংয়ের দিন ধার্য করা হয়। আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন উদ্যোক্তা ননী ভূষণ অধিকারী। তিনি বেদ চর্চা এবং যোগ ব্যামের উপর পারদর্শী লোক গুলোকে খুজে বের করা এবং  বৈদিক কণ্ঠকে সহায়তার জন্য উপস্থিত সকলকে আহবান করেছেন। মলিন রায়, উত্তম কুমার রায়, সুকান্ত রায়, রাজ মাধব প্রমূখ সহ আরো অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

আদর্শলিপিতে সংস্কৃত বর্ণমালা (দেব নাগরী লিপি) চলে আসবে যা একটি শিশুকে সংস্কৃত পড়ার যোগ্যতা তৈরি করবে।এই বইটি যোগ ব্যায়াম শিখাবে যাতে শিশু হবে নিরোগ দেহ এবং সুস্থ মনের অধিকারী।  তাই শিক্ষকদের থাকবে প্রশিক্ষনের ব্যাবস্থা।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

© All rights reserved © 2019  
IT & Technical Support: BiswaJit