মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ০৪:২০ অপরাহ্ন

হারিয়ে যাচ্ছে সালথার ঐতিহ্যবাহী মৃৎশিল্প

মৃৎশিল্প

আবু নাসের হুসাইন, সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি: ফরিদপুরের সালথা উপজেলার ঐতিহ্যবাহী মৃৎশিল্প এক সময়ে খুব সুনাম বা কদর ছিলো। নানা প্রতিকুলতায় ঐতিহ্যবাহী মৃৎশিল্প আজ বিলুপ্তির পথে। উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের সোনাপুর পালপাড়া, গট্টি ইউনিয়নের রসুলপুর পালপাড়া ও আটঘর ইউনিয়নের গৌড়দিয়া পালপাড়া ছিলো মৃৎশিল্পের প্রাণকেন্দ্র।

এ দুটি গ্রামসহ উপজেলার আটটি ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামে ২শতাধিক মৃৎশিল্পী রাত দিন কাজ করতো। তারা মাটি দিয়ে হাড়িঁ, পাতিল, বাসন-কোসন, কড়াই, ঢাকনা, কলকি, পেয়ালা, কলসি, ফুলদানি প্রভূতি তৈরিতে ব্যস্ত ছিলো। ছোট ছেলে-মেয়েরা তৈরি করতো হরেক রকমের পুতুল। এসব মৃৎশিল্প উপজেলাসহ আশপাশের বাজারগুলোতে বিক্রি করে সংসার চালাতেন মৃৎশিল্পীরা। কালের বিবর্তনে ঐতিহ্যবাহী এই পেশা ছেড়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে তারা। বর্তমানে উপজেলার কয়েকজন মৃৎশিল্পী তাদের বাপ-দাদার আদি পেশা কোনমতে আকঁড়ে ধরে আছেন।

মাটির তৈরি তৈজ্যষপত্রের স্থান দখল করে নিয়েছে এল্যুমিনিয়াম ও প্লাস্টিকের তৈজ্যষপত্র। এগুলোর দাম বেশি হলেও অধিক টেশসই হয়। তাই মাটির তৈরি তৈজ্যষপত্র এখন আর কেউ ক্রয় করতে চায় না।

কয়েকজন মৃৎশিল্পী এ প্রতিবেদককে জানান, তাদের ঐতিহ্যবাহী মাটির তৈরি জিনিসপত্রের কদর ও বিক্রয় কম হওয়ায় পর্যায়ক্রমে হারিয়ে যাচ্ছে মৃৎশিল্প। এ কারণে তাদের সংসার চালাতে বিপর্যয় নেমে এসেছে। তারা আরও জানান, সরকারী-বেসরকারী এনজিও থেকে সার্বিক সহযোগিতা পেলে তাদের কার্যক্রম বৃদ্ধি পাবে।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

© All rights reserved © 2019  
IT & Technical Support: BiswaJit