বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৩৩ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
ফরিদপুর এলজিইডির নবাগত নির্বাহী প্রকৌশলীকে অভ্যর্থনা জানালেন প্রেসক্লাবের সভাপতি ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে অসহায় নারীদের ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা নকশী ফোঁড়ে জীবনের স্বপ্ন বুনন ঝিনাইদহে মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস কাবাডি প্রতিযোগিতা ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল দপ্তরের দুর্নীতির চিত্র- ১ বাগেরহাটে সরকারী ১২ পুকুর খননে ,চলছে পুকুর চুরি শার্শায় অবৈধ বালু উত্তোলন, জেল-জরিমানা ঝিনাইদহে সড়কের জায়গা দখল করে বালির ব্যবসা, নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ ঝিনাইদহে যৌন হয়রানি রোধে র‌্যালি ও আলোচনা সভা ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে সিএসএল প্রকল্পের উদ্বোধন কমলগঞ্জে মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পের সুপারভাইজার ও শিক্ষকদের মাসিক সম্মানী ভাতা প্রদান কমলগঞ্জে আরডিআরএস বাংলাদেশের বাস্তবায়নে স্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

অধ্যক্ষের হাতে কলেজ ছাত্রী লাঞ্চিত

অধ্যক্ষের হাতে কলেজ ছাত্রী লাঞ্চিত

নিজস্ব প্রতিনিধি(মৌলভীবাজার):  মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর সুজা মেমোরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষের হাতে ছাত্রী লাঞ্ছিত হওয়ার অভিযোগ করেছেন ছাএীর বাবা।

কলেজ ছাএীর বাবা অভিযোগে বলেন, রবিবর (৩১মার্চ) প্রতিদিনের ন্যায় সেদিনও সাজেদা রিয়া গিয়েছিলো নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সুজা মেমোরিয়াল কলেজে। মানবিক বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী সাজেদা রিয়া সহপাঠীদের সাথে কলেজের বারান্দায় দাঁড়িয়ে ছিলেন। শুরু হয় ঝড় বৃষ্টি ও বজ্রপাত। দ্রুত ক্লাস রুমের ভেতর ঢুকতে চাইলে ঝড়ো বাতাসের কারণে দরজা বন্ধ হয়ে যায়। তখন সাজেদা দরজা জোরে ধাক্কা দিয়ে ভিতরে ঢোকেন। জোরে দরজা লাগানোতে ক্ষিপ্ত হয়ে কলেজ শিক্ষক মাসুদুর রহমান অধ্যক্ষ ম. মুর্শেদুর রহমানকে বিষয়টি অবহিত করেন।

অধ্যক্ষ ক্লাস চলাকালীন সময়ে সহপাঠীদের সামনে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন। কলেজ ছাত্রী বলে যে, ঝড়-বৃষ্টি ও বজ্রপাতের শব্দের ভয়ে বারান্দা থেকে দ্রুত ক্লাসরুমে ঢুকতে চাইলে জোরে ধাক্কা লাগে। তারপরও অধ্যক্ষ সহপাঠীদের সামনে ছাত্রীকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন। সহপাঠিদের সামনে এমন ঘটনায় অপমানিত হয়ে সাজেদা কান্না শুরু করলে শিক্ষক মাসুদুর রহমান সাজেদা রিয়াকে হাত ধরে টান দিয়ে অধ্যক্ষের পায়ে ফেলে দেন। তখন কলেজ ছাত্রী জ্ঞান হারান।পরে সহপাঠীদের সহযোগিতায় সাজেদাকে তার বাড়িতে আনা হয়। জ্ঞান ফিরলে কলেজের ঘটনাটি তার পিতাকে অবহিত করে সাজেদা। বাবা মোঃ কুতুব আলী সাবেক মেম্বারকে ঘটনাটি অবহিত করেন। ঘটনার দিন রাত ১টার দিকে মেয়েটির শরীরে খিচুনি শুরু হয়। স্থানীয় পল্লী চিকিৎসককে দেখানো হলেও অবস্থার অবনতি হতে থাকে। দ্রুত মৌলভীবাজারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় রিয়াকে। সাজেদা রিয়া এখনো হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। পরদিন কলেজ ছাত্রীর পিতা সুজা মেমোরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ বাবু মুর্শেদকে মেয়ের শারিরিক অবস্থা সম্পর্কে অবহিত করলে অধ্যক্ষ বাবু মুর্শেদ বলেন, এসব আমার জানার বিষয় নয়। আপনার মেয়ে, আপনি যা করার করেন।

এ ব্যাপারে সুজা মেমরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ বাবু মুর্শেদের সঙ্গে সাথে ফোনে আলাপ করলে তিনি বিষয়টি অস্বীকার করেন। বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, সুজা মেমোরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষের নামে বিভিন্ন অনৈতিক কার্যক্রমের গুঞ্জন রয়েছে। তিনি একইসঙ্গে সুজা মেমোরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ, পাশাপাশি মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের একজন সদস্য। এই ক্ষমতা শক্তি দিয়ে তিনি সবকিছু ম্যানেজ করেন বলে জানা যায়।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

© All rights reserved © 2019  
IT & Technical Support: BiswaJit