সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯, ০৮:৪৩ অপরাহ্ন

বাংলাদেশ আবার মিনি পাকিস্তানে পরিণত হয়েছে: রাণা দাশগুপ্ত

রাণা দাশগুপ্ত

রাইকিশোরীঃ পাকিস্তান আমলে যেমন আমাদেরকে রাষ্ট্রীয় সংখ্যালঘু হিসেবে চিহ্নিত করে ২৪ টি বছর বঞ্ছনা, বৈষম্য, নির্যাতন, নিপীড়নের দিকে ঠেলে দিয়েছিল আমরা পচাত্তরের পর থেকে দেখি বাংলাদেশ আবার মিনি পাকিস্তানে পরিণত হয়েছে। বললেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের প্রসিকিউটর ও বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক  রানা দাশগুপ্ত।

পহেলা মার্চ শুক্রবার ঢাকা জগন্নাথ হলে বাংলাদেশের বেদান্ত সাংস্কৃতিক মঞ্চ কতৃক স্বামী বিবেকানন্দের ১৫৪ তম এবং স্বামী প্রণবানন্দের ১২৪ তম জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে ‘মনীষীদের আদর্শই সার্বজনীন মানবতাবাদ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

হিন্দু-বৌদ্ধ- খ্রিস্থান ঐক্য পরিষদের সাধারন সম্পাদক অ্যাড. রানা দাশ গুপ্ত মহাশয় দুঃখ প্রকাশ করে বলেন একাত্তরের যুদ্ধের আগে যেমন নিজেদের অধিকার এর দাবিতে লড়াই করতে হয়েছিল আজ স্বাধীনতার এত বছর পরও আবার করতে হবে তা খুবই দুঃখজনক এবং মর্মান্তিক।

তিনি আরো বলেন, আমরা বলতে চাই পলায়নের মধ্যে কোন মুক্তি নাই, সমস্যা আমাদের কাছে থাকবেই কিন্তু সমাধানের জন্য আমাদের একসাথে সঙ্ঘবদ্ধ হয়ে রুখে দাড়াতে হবে। আমরা প্রকৃত ধর্ম নিরপেক্ষ রাষ্ট্র চাই।

তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্খালঘু মন্ত্রণালয় গঠন করার প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়নের রুপ চেয়ে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে যে জিরো টলারেন্স ঘোষণা হয়েছে প্রত্যক্ষভাবে তা দৃশ্যমান করার দায়িত্ব সরকারকে নিতে হবে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে দি নিউজ এর উপদেষ্টা সম্পাদক শ্রী ধীরেন্দ্রনাথ বারুরী তার ৭৭ বছরের জীবনের এবং মুক্তিযুদ্ধের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেছেন যা শুনে তরুন প্রজন্ম অভিভুত।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্দ্যালয়ের শিক্ষক শ্রীমান কুশল চক্রবর্তী তার বক্তব্যের মাঝে স্বামী বিবেকানন্দের মত বার বার তরুণদের জাগ্রত হতে বলেছেন, ভাষা শহীদ দের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে সকলকে বলেছেন আসল বাংলা ভাষার উৎপত্তির গোঁড়ার কথা খুঁজে দেখতে, বাহ্যিক আড়ম্বর না দেখিয়ে বাংলা ভাষার আসল জনকদের প্রতি সত্যিকারের শ্রদ্ধা নিবেদন করতে। সনাতন ধর্ম এমন একটা ধর্ম যা সকলকে সকলের প্রতি নম্র হতে শেখায়, উদার হতে শেখায়, মানুষকে মূল্যায়ন করতে শেখায়। সেই সাথে তিনি এই বলে দুঃখ প্রকাশ করেছেন যে মাদারীপুরে স্বামী প্রণবানন্দের জন্মস্থান সেই জেলায় তার নামে একটা সামান্য প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত নেই, আমাদের দেশের ঐতিহ্য মণ্ডিত জায়গাগুলির স্মৃতি ধীরে ধীরে বিলুপ্তির পথে যা অত্যন্ত দুঃখদায়ক।

উক্ত আলোচনা সভায় বিভিন্ন মনীষীদের বানী তুলে ধরে বক্তব্য রেখেছেন বিভিন্ন বিশিষ্ট জন। এই অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ছিলেন মাননীয় শ্রী ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু এমপি, প্রধান বক্তা হিসেবে দিল্লি থেকে এসেছিলেন ডঃ শ্যামা প্রসাদ মুখার্জী রিচার্স সেন্টার এর পরিচালক শ্রী অনির্বাণ গাঙ্গুলী এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে সর্বভারতীয় বার এসোসিয়েশসন নিউ দিল্লী এর সাধারণ সম্পাদক শ্রী জয়দ্বীপ মুখার্জী, কলকাতার বরেণ্য সাংবাদিক রন্তিদেব সেনগুপ্ত, বীরমুক্তিযোদ্ধা শ্রীমতী আশালতা বৈদ্য।

এই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেছেন বেদান্ত সাংস্কৃতিক মঞ্চের উপদেষ্টা শ্রী নিতাই চাঁদ তালুকদার(এফসিএ)।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

© All rights reserved © 2019  
IT & Technical Support: BiswaJit