বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ০৫:১৫ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
সু-প্রভাত ও জাবালে নূর পরিবহনের সব বাস চলাচলে নিষেধাজ্ঞা ৩৭তম বিসিএসে উত্তীর্ণদের নিয়োগে প্রজ্ঞাপন জারি মেহেরপুরে নাশকতা মামলায় বিএনপির ২০ নেতা-কর্মী কারাগারে মেহেরপুরে জাতীয় নজরুল সম্মেলন উপলক্ষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান মেহেরপুরে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত মেহেরপুরে নজরুল সম্মেলন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত মেহেরপুরে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন নবীগঞ্জে ২ মাদক ব্যবসায়ীকে ভ্রাম্যমান আদালতের ৩ মাসের জেল জরিমানা যক্ষ্মা রোগের যুগপোযোগী ওষুধ উদ্ভাবনের প্রতি গুরুত্বারোপ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদ্মা সেতুতে যুক্ত হতে চলেছে নবম স্প্যান

আগৈলঝাড়ায় সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গা ও খাল দখল করে চলছে পাকা ভবন নির্মানের অভিযোগ

আগৈলঝাড়ায় সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গা ও খাল দখল করে চলছে পাকা ভবন নির্মানের অভিযোগ

আগৈলঝাড়া(বরিশাল)সংবাদদাতাঃ বরিশালের আগৈলঝাড়ায় সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গা দখল করে পাকা ভবন নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে এক স্কুল শিক্ষকসহ স্থানী আরেক প্রভাবশালী বিরুদ্ধে। তাদের ভয়ে স্থানীয়রা মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বরিশাল সড়ক ও জনপথ বিভাগের আওতাধীন গৌরনদী-আগৈলঝাড়া-গোপালগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে আগৈলঝাড়া উপজেলার গৈলা ইউনিয়নের রথখোলা পল্লী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের সামনে সওজ’র সড়কের পাশের কালভার্ট সংলগ্ন জায়গা ও পাশবর্তী খাল দখল করে সেখানে পাকা ভবন নির্মানের কাজ করছেন পূর্ব সুজনকাঠী গ্রামের নবী আলী হাওলাদারের ছেলে নোনা পুকুরপাড় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক এইচ এম মাসুদ হাওলাদার ও দক্ষিণ শিহিপাশা গ্রামের রফিজ উদ্দিন হাওলাদারের ছেলে জহিরুল ইসলাম।

দখলদাররা সড়কের পাশের সরকারী জায়গা দখলের পাশাপাশি পাশ্ববর্তি সরকারী খালও দখল করে পাকা ভবন নির্মাণ করায় খালের পানি প্রবাহ সম্পূর্নরুপে বন্ধ হবার আশংকায় রয়েছেন কৃষকেরা। সম্প্রতি তারা সওজের জায়গায় পাকা ভবন নির্মাণের কাজ শুরু করলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিপুল চন্দ্র দাস সংশ্লিষ্ঠ গৈলা ইউনিয়নের তহশিলদার জাহাঙ্গীর আলমকে পাঠিয়ে কাজ বন্ধ করে দিয়ে জায়গার স্বপক্ষে তাদের কাছে কাগজপত্র দেখতে চান।

কিন্তু দখলদাররা স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী হওয়ায় নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশ অমান্য করে মঙ্গলবার থেকে সেখানে পুণরায় তাদের পাকা ভবন নির্মাণের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। দখলদার মাসুদ হাওলাদার বলেন, পাকা ভবন নির্মানের জায়গায় পূর্বে তার পিতার ঘর ছিল। সেই হিসেবে সে পাকা ভবন নির্মান কাজ করছেন। বরিশাল সওজ এর আগৈলঝাড়া এলাকার দায়িত্বে থাকা এসও আবু হানিফ মিয়া বলেন, সওজ,র জায়গা দখলের বিষয়টি তার জানা ছিল না। তাদের অফিসের লোক পাঠিয়ে তিনি কাজ বন্ধের ব্যবস্থা নেবেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিপুল চন্দ্র দাস সাংবাদিকদের বলেন, জনগনের ব্যবহারের জন্য খাল সরকারী সম্পত্তি। সেটা কেউ দখলে নিতে পারবে না। কাজ বন্ধে করে দেয়ার পরে আবার কাজ শুরুর ঘটনায় তিনি পুনরায় লোক পাঠিয়ে কাজ বন্ধ করার নির্দেশ প্রদান করেছেন বলেও জানান।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

© All rights reserved © 2019  
IT & Technical Support: BiswaJit