২০শে জানুয়ারি, ২০১৯ ইং | ৭ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৮:৫১
সর্বশেষ খবর
রবীন্দ্র ঘোষ

অবৈধ ভাবে দখল করা মাইনোরিটিদের সম্পত্তি ছেড়ে দিন -রবীন্দ্র ঘোষ

উত্তম কুমার রায়ঃ  অবৈধ ভাবে দখল করা মাইনোরিটিদের সম্পত্তি ছেড়ে দিন। বললেন বে-সরকারি মানবাধিকার সংস্থা  বাংলাদেশ মাইনোরিটি ওয়াচ চেয়ারম্যান এ্যাড রবীন্দ্র ঘোষ

সম্প্রতি কুমিল্লা মেঘনা উপজেলায় ভাওরখোলা ঐতিহাসিক রাধা কৃষ্ণের মন্দির ভাংচুর পরিদর্শনে কালে তিনি এ কথা বলেন।

উল্লেখ্য কুমিল্লার মেঘনা উপজেলার ভাওরখোলা গ্রামের উত্তরপাড়ার হিন্দুদের ঐতিহাসিক শ্রী শ্রী “রাধা কৃষ্ণ ” মন্দিরটি ৭ই নভেম্বর বুধবার সংস্কার করতে গেলে ভুমিদুশ্য রাজ্জাক রশিদ গংরা বাধাঁ দেয়,এতে বাগদন্ডিতায় জরিয়ে মন্দির ও মন্দিরে বিগ্রহ ভাংচুর করে,উত্তরপাড়ার হিন্দুরা প্রতিবাদ করলে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয় এতে প্রানগোপাল নামের একজন আহত হয়,মেঘলা থানা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে দ্রুত উপস্থিত হলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

এইদিকে ভাংচুর মন্দিরটিতে পরিদর্শন করেন বাংলাদেশ মাইনরটি ওয়াচ জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সন্মানিত চেয়ারম্যান সুপ্রিমকোর্টের জ্যেষ্ঠ এড. রবীন্দ্র ঘোষ। এসময় আ: রশিদ গংদের মন্দির ভাংগার বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তারা অপরাধ স্বীকার করে দু:খ প্রকাশ করেন।

এখানে উল্লেথ্য গত ৭/১১/১৮ তারিখ রাতে হিন্দুদের “রাধা কৃষ্ণ ” মন্দিরটির ভাংগচুরের ঘটনা ঘটে। এক প্রশ্নের জবাবে তারা বলেছেন ‘ আমরা এবাড়িতে অনেক দিন ধরে থাকি, তাই আমরা দখল সত্ত্বে মালিক, তবে ডা. দীনেশ দেবনাথ তার মালিকানার কাগজ তিনি যাচাই করে দেখেন ও সত্যতা পান, এসময় এডভোকেট রবীন্দ্র ঘোষ আ: রশিদগংদের কাছে তাদের স্বপক্ষে মালিকানা কাজপত্র দেখতে চাইলে তারা তা দেখাতে পারেনি। বরং উল্টো রশিদের ছেলে শাহিন কবির, রবীন্দ্র ঘোষের সাথে খারাপ ব্যবহার শুরু করে দেয়, সে সময় উপস্থিত লোকজন শাহিন কবিরকে শান্ত করার চেষ্টা করে।

বাংলাদেশ মাইনরিটি ওয়াচের জেনারেল সেক্রেটারি মানিক চন্দ্র সরকার, অজিত পান্ডেসহ ২০ জনের একটি প্রতিনিধি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। সবার কথা বার্তা শুনে রবীন্দ্র ঘোষ বলেন’ আপনারা যারা হিন্দু বাড়ি অবৈধ ভাবে জোড়পূর্বক দখল করে আছেন, তাদেরকে দখল ছেড়ে দেয়ার অনুরোধ করছি, যাতে সামনে কোন বড় ধরনের ঝামেলা সৃষ্টি না হয়। তবে বিষয়টি স্থানীয় ভাবে মীমাংসা করা যায় কিনা সে ব্যপারে স্থানীয় মেম্বার সাবমিয়া, নাজির মেম্বার ও সেলিম মিয়াকে চেষ্টা করে দেখার জন্য অহ্বান জানান।

এসময় মেঘনা থানার পুলিশ কর্মকর্তা, স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার মো সাব মিয়া, নাজির মেম্বার, সেলিম ও বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ মেঘনা শাখার সভাপতি ডা. দীনেশ দেবনাথসহ গ্রামের অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Pin It on Pinterest

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial