১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৭:৫১
বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী

শেখ হাসিনাই রাজাকারের গাড়িতে প্রথম পতাকা দিয়েছেন

বিএনপি রাজাকারের গাড়িতে প্রথম পতাকা দেয়নি। শেখ হাসিনাই রাজাকারের গাড়িতে প্রথম পতাকা দিয়েছেন। কাদেরিয়া বাহিনী যাকে বন্দি করে জেলে রেখেছিল। সেই জামালপুর সরিষাবাড়ির নুরু মাওলানাকে প্রথম পতাকা দিয়ে ধর্মমন্ত্রী করেছিলেন শেখ হাসিনা। বললেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি ও ঐক্যফ্রন্ট নেতা বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী।

শুক্রবার বিকেলে রাজশাহীর আলিয়া মাদরাসা মাঠে আয়োজিত বিভাগীয় জনসভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, রংপুরের আশিকুর রহমান, ময়মনসিংহ ও টাঙ্গাইলের ডিসি চাঁদপুরের মহিউদ্দিন আলমগীরকে আমার বিগ্রেডিয়ার ফজলুর রহমান লাথি মারতে মারতে জেলখানায় রেখেছিল।

বঙ্গবীর বলেন, আমি কাদের সিদ্দিকী বিএনপির সভায় আসিনি। ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যফন্টের সভায় এসেছি। শেখ হাসিনাকে বলেছিলাম আলোচনায় বসুন। দেশের মানুষকে বাঁচান। তিন বছর পরে হলেও তাকে আলোচনায় বসতে হয়েছে। যেদিন তিনি আলোচনায় বসেছেন সেদিন আপনারা জিতে গেছেন।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে কাদরে সিদ্দিকী বলেন, আপনারা শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় রাখতে চান, নাকি জিততে চান? জিততে চাইলে আপনাদের লড়তে হবে। লড়তে হলে নামতে হবে।

বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী বলেন, খালেদা জিয়া জেলখানায় যাওয়ার আগে বলেছিলেন আমি যদি মরেও যাই তোমারা হরতাল অবরোধ করবে না। তার এ সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের মানুষের হৃদয় স্পর্শ করেছে। আমি মনে করি বাংলাদেশের রাজনীতি বলতে খালেদা জিয়া।বাংলাদেশের এমন কোনো জায়গা নেই যে খালেদা জিয়াকে বন্দি করে রাখা যাবে।

তিনি বলেন, আমরা বিএনপির মিটিংএ তামুক খেতে আসিনি। আপনাদের এ দুঃসময়ে যে কয়েকটি মেয়ে এসেছে। আমার দলে তার অর্ধেক থাকলে শেখ হাসিনাকে তিনদিনের মধ্যে সরকার থেকে ফেলে দিতাম।

তিনি আরও বলেন, আমি টাঙ্গাইল থেকে সড়ক পথে এসেছি।আমি গরিব মানুষ গরিবের মতো চলাফেরা করি। পুলিশ রাস্তায় রাস্তায় বাধা দিয়েছে।পুলিশ ভাইদের বলি সাংসদ থাকতে অন্তত সাতবার পুলিশের সুযোগ সুবিধার জন্য প্রস্তাব করেছিলাম। সেজন্য এতো বেতন।শুধু হাসিনা নয় আমার কথাও শুনবেন।যারা ঘুষ দিয়ে চাকুরিতে ঢুকেছেন তাদের টাকা ফেরত দিয়ে দেব। ঘুষ দিয়ে যারা ঢুকেছে তাদের ১০ লাখ টাকা ফেরত দেব। কারণ মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও এমপিরা ১০ লাখের বেশি টাকা ঘুষ নিয়ে চাকুরি দিয়েছে।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.