বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৩:৫৪ অপরাহ্ন

এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নিখুঁত ও নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা

এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা

আসন্ন এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা সর্বোচ্চ নিখুঁত ও নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে সম্পন্ন করতে বহুমাত্রিক পদক্ষেপ নিচ্ছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

গত কয়েক বছরের সাফল্যের ধারাবাহিকতা উজ্জ্বলতর করতে এবারের ভর্তি পরীক্ষায় বাড়তি সতর্কতা ও কঠোর পন্থা অবলম্বনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে একটি হলো পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্বরত পরিদর্শক বা কর্মকর্তা কোনো মোবাইল ফোন নিয়ে যেতে পারবেন না। প্রতি কেন্দ্রের অভ্যন্তরে কর্মকর্তাদের মধ্যে যোগাযোগের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঁচটি অ্যানালগ মোবাইল ফোন সরবরাহ করা হবে।

আজ সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত আসন্ন এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা সম্পাদনে ওভারসাইট কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এতে সভাপতিত্ব করেন। আগামী ৫ অক্টোবর সারাদেশের ১৯টি কেন্দ্রে এই ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

সভায় স্বাস্থ্য মন্ত্রী বলেন, গত কয়েক বছর যাবত এমবিবিএস ও বিডিএস ভর্তি পরীক্ষা সর্বোচ্চ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। অভিভাবক, ছাত্রসমাজসহ সর্বস্তরের মানুষের কাছে পরীক্ষাগুলো শতভাগ গ্রহণযোগ্য হয়েছে। কিন্তু এ নিয়ে সন্তুষ্ট থাকলে চলবে না। এবারের পরীক্ষাও আরো নিখুঁতভাবে সম্পন্ন করার জন্য সংশ্লিষ্টদের বাড়তি সতর্কতা অবলম্বনের পরামর্শ দেন মন্ত্রী। এসময় পরীক্ষা প্রক্রিয়া নিয়ে কোনো অমূলক সন্দেহ নিরসন বা ভূয়া প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে কোন রকমের গুজব প্রতিরোধে সতর্ক থাকার জন্য নাগরিক সমাজ, গণমাধ্যম, অভিভাবক ও ছাত্রসমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, এবারের পরীক্ষায় অন্যবারের তুলনায় আরো আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার হচ্ছে, আরো কঠোরতা অবলম্বন করা হবে। যাতে কোনো দূর্বলতার সুযোগ থাকবে না। তিনি বলেন, সরকার ১০ বছর পর এবার সরকারি মেডিকেল কলেজে আরো ৭০০ আসন বাড়িয়েছে। ফলে গতবারের তুলনায় এবারে বেশি সংখ্যক শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পাবে এবং মেধাবীরাই ভর্তি হতে পারবে।

সভায় জানানো হয় এবার সরকারি কলেজে ৪ হাজার ৬৮টি এবং বেসরকারি মেডিকেল কলেজে ৫ হাজার ৭৫১টি আসন রয়েছে। গত ৩১ আগস্ট থেকে অনলাইনে আবেদন শুরু হয়েছে যা চলবে ১৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত প্রবেশপত্র ডাউনলোড করার সুযোগ থাকবে।

সভায় শুরুতে ওভারসাইট কমিটির সদস্য মরহুম সাংবাদিক ও সমকাল-এর সাবেক সম্পাদক গোলাম সারওয়ারের স্বরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। তাঁর স্থলে দৈনিক যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলমকে ওভারসাইট কমিটির সদস্য হিসাবে অন্তর্ভূক্ত করার নির্দেশ দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

সভায় অন্যান্যের মাঝে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব জিএম সালেহ উদ্দিন, বিএসএমএমইউ-এর উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়–য়া, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, বিএমএ’র সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, সাংবাদিক ও কলাম লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদ, আমাদের অর্থনীতির সম্পাদক নাইমুল ইসলাম খান, প্রথম আলোর যুগ্ম সম্পাদক আবদুল কাইয়ুমসহ মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

© All rights reserved © 2019  
IT & Technical Support: BiswaJit