১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:৩১
সর্বশেষ খবর
নবীগঞ্জ স্বাস্থ্যসেবা পুরনে ৫০ শয্যা নতুন ভবনটি

নবীগঞ্জ উপজেলার স্বাস্থ্যসেবা পুরানো ৫০ শয্যা নতুন ভবনটির যাত্রা শুরু

উত্তম কুমার পাল হিমেল,নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ নবীগঞ্জ উপজেলার প্রায় ৫ লক্ষাধিক মানুষের দীর্ঘদিনের স্বাস্থ্যসেবার প্রত্যাশা পুরনের অঙ্গীকার নিয়ে নব নির্মিত ৫০ শয্যা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স ভবনটির যাত্রা শুরু হবে ৩১জুলাই মঙ্গলবার ১০ টায়।

নতুন ভবনের উদ্বোধন উপলক্ষ্যে উপজেলার আপামর জনসাধারনসহ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের মাঝে যেন আনন্দের বন্যা বিরাজ করছে। নতুন ভবনটিকে নানান রকমের রঙ্গীন সাজে সজ্জিত করা হয়েছে। এ নতুন ভবনের উদ্বোধন জলে নবীগঞ্জবাসী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দ্বারা বিভিন্ন রোগ নিরাময়ে কনসালটেশন,পরীক্ষা-নিরীক্ষার আধুনিক যন্ত্রপাতি ও বিনামুল্যে ওষধপত্র পাওয়ার বাড়তি সুবিধার পাবেন।

সারাদেশে সাধারন মানুষের মাঝে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে বর্তমান সরকারের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী দেশের প্রতিটি উপজেলায় ৫০ শয্যা হাসপাতাল নির্মান প্রকল্পের আওতায়ই এটি নির্মান করা হয়েছে।

নবীগঞ্জ উপজেলাবাসীর দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পুরনের প্রধান অতিথি হিসাবে দ্বার উন্মোচন করে নতুন ভবনের উদ্বোধন করবেন নবীগঞ্জ-বাহুবল আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য মোঃ মুনিম চৌধুরী বাবু। নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লক্সের ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুস সামাদের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্টানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন হবিগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক ডাঃ মুশফিক হোসেন চৌধুরী,স্বাস্থ্য বিভাগের সিলেট বিভাগের পরিচালক ডাঃ মোঃ সোহরাওয়ার্দী,হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন ডাঃ সুচিন্ত চৌধুরী,নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী,নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন হাসান,নবীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র ছাবির আহমদ চৌধুরী,উপজেলা পরিষদেও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজমা বেগম,নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইমদাদুর রহমান মুকুল,সাধারন সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী,উপজেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক শাহ আবুল খায়েরসহ অন্যান্য অতিবিৃন্দ। নতুন ভবনটির দ্বার উন্মোচন করে শুন্যপদে নতুন চিকিৎসক নিয়োগ করা হলে নবীগঞ্জ উপজেলাবাসী ও সাধারন মানুষের স্বাস্থ্যসেবায় গুরুত্বপুর্ন ভুমিকা পালন করবে বলে অনেকেই মনে করছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও প: প: ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডা: আব্দুস সামাদ বলেন,৫০ শয্যা হাসপাতালটি চালু হলে সাধারন মানুষের সেবারমান অনেকটা বৃদ্ধিপাবে। বিভিন্ন রোগ নির্নয়ে কনসালটেন্টদের কাছ থেকে সেবাসহ সরকারীভাবে আধুনিক যন্ত্রপাতি সরবরাহ করা হবে। সাধারন মানুষের সেবা প্রদানে আমরা বদ্ধ পরিকর।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.