১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ১লা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৭:৫৩
সর্বশেষ খবর

লক্ষ্মীপুরে গুজবে বাড়িছাড়া স্কুলছাত্রী, অভিযোগ চাচার বিরুদ্ধে

তানভীর আহমেদ, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরে দশম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীর নামে অপবাদ রটানোর অভিযোগ উঠেছে। গুজবটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ার পর আতঙ্কে গত ২ দিন যাবত ঘরছাড়া রয়েছে ওই ছাত্রী ও তার পরিবার। জানা গেছে, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ওই ছাত্রীর নামে অপবাদ রটিয়ে তার দিনমজুর বাবাকে ঘায়েল করার পাঁয়তারা করছে একটি স্বার্থান্বেষী মহল। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে ওই দিনমজুরের ঘর ও তার মেয়েকে এসিডে জ্বালিয়ে দেওয়ার চক্রান্ত করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।

 

স্থানীয়রা জানায়, সদর উপজেলার চররুহিতা ইউনিয়নের বাসিন্দা দিনমজুর আবুল হাশেম এর মেয়ের নামে একটি জঘন্যতম অপবাদ রটায় তার আপন ভাই আবুল কাশেম ও তার স্ত্রী মাইনুর বেগম। জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এমন গুজব ছড়ানো হচ্ছে বলে ধারণা করছেন তারা। গত বুধবার বিষয়টি নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এরপর স্থানীয় কয়েকজন বখাটেকে দিয়ে ওই ছাত্রীর পরিবারকে চাপ দিলে আতঙ্কে তারা ঘরছেড়ে পালিয়ে যায়।

 

ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা আবুল হাশেম বলেন, আমি একজন খেটে খাওয়া মানুষ। জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে আমার মেয়ের নামে অপবাদ রটিয়েছে আমার আপন ভাই আবুল কাশেম ও তার পরিবারের লোকজন। কাদোঁ কাদোঁ কণ্ঠে তিনি আরো বলেন, আমার মেয়ে গত কয়েকদিন যাবত স্কুলেও যেতে পারছে না। আমার ভয় হয়, লজ্জায় না জানি সে কোন অঘটন ঘটায়! দয়া করে আমাদের বাঁচান।

 

ওই ছাত্রীর মায়ের অভিযোগ এ গুজবকে কেন্দ্র করে তাদের ঘরবাড়ি ও মেয়েকে আগুনে জ্বালিয়ে দেওয়ার হুমকি দিচ্ছে প্রতিপক্ষ লোকজন।

 

অভিযুক্ত আবুল কাশেম তার ভাইয়ের সাথে জমি সংক্রান্ত বিরোধের বিষয়টি স্বীকার করেন। জানতে চাইলে তার স্ত্রী মাইনুর বেগম বলেন, ওই মেয়েকে এসিডে জ্বালিয়ে দেওয়া উচিত। এটা বলেছি তো কি হয়েছে?

 

এদিকে রসুলগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আহম্মদ আবু আব্দুল্যাহ জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি। ভুক্তভোগী ছাত্রীর পরিবারের লোকজন এবিষয়ে সহযোগিতা চাইলে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় চেয়ারম্যানের মাধ্যমে সহযোগিতা করা হবে।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.