২১শে আগস্ট, ২০১৮ ইং | ৬ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৩:৫৯
শিক্ষককে বরখাস্তের অভিযোগ

বাগেরহাটে পছন্দের শিক্ষককে নিয়োগ দিতে অন্যায়ভাবে ৩ শিক্ষককে বরখাস্তের অভিযোগ

এস.এম. সাইফুল ইসলাম কবির, বাগেরহাট অফিস:বাগেরহাটে পছন্দের শিক্ষককে প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দিতে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকসহ ৩ শিক্ষককে নিয়ম বহির্ভুতভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। বাগেরহাট সদর উপজেলার সুন্দরঘোনা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি কাজী মতিনুর রহমান ২৪ ঘন্টার নোটিসে বরখাস্ত করে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে ব্যাংক থেকে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা তুলে নেয়ার অভিযোগ করেছেন শিক্ষকরা।

বুধবার সভাপতির এসব অনিয়ম, দুর্নীতি ও সেচ্ছাচারিতা বন্ধে জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদন করেছেন বিদ্যালয়ের বরখাস্ত হওয়া তিন শিক্ষক। বরখাস্তকৃত শিক্ষকরা হলেন, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শেখ শামীম হাসান, সহকারী শিক্ষক (শরীর চর্চা) শেখ মোঃ আবদুল ওয়াহাব ও সহকারী শিক্ষক (কম্পিউটার) মোসাঃ কামরুন্নাহার।

তারা অভিযোগ করেন, শিক্ষক ও অভিভাবকদের সালাম ও সম্মান প্রদর্শন না করা, রমজানে অতিরিক্ত কাস না নেওয়াসহ কয়েকটি অভিযোগ এনে আমাদের বিরুদ্ধে ৪ জুন কারণ দর্শানো নোটিস করেন সভাপতি। ডাকযোগে পাঠানো ঐ নোটিস আমরা ১০ জুন হাতে পাই। পরের দিন নোটিসের জবাব দেই। অথচ ঐদিনই আমাদের নামে বরখাস্তের আদেশ দেন। সাথে সাথে সহকারি শিক্ষক মোঃ শহিদুল্লাহ সরদারকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা তুলে নেন সভাপতি কাজী মতিনুর রহমান।

তারা অভিযোগ করেন সভাপতির অনিয়ম, দুর্নীতি ও নিয়ম বহির্ভুতভাবে পছন্দের শিক্ষক নিয়োগের বিরুদ্ধে কথা বলায় তাদের বিরুদ্ধে এ ধরণের শাস্তি মূলক ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। যা বিধি বহির্ভুত ও অমানবিক।

বাগেরহাট জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ কামরুজ্জামান বলেন, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এটা অস্বাভাবিক। এক সাথে ৩জন শিক্ষককে বরখাস্ত করা বিধি বহির্ভুত।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি কাজী মতিনুর রহমানকে ফোন করা হলে সরাসরি কথা বলবেন বলে এড়িয়ে যান। তবে দ্বিতীয়বার ফোন করা হলে তিনি কোন কথা বলতেই রাজি হননি

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.