১৯শে জুন, ২০১৮ ইং | ৫ই আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:২৮
হিন্দু ছাত্রী অপহরন

উত্যক্তের প্রতিবাদে ঘরে ঢুকে হিন্দু স্কুল ছাত্রীকে অপহরণ

নয়ন লাল দেব, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি॥  উত্যক্তের করার প্রতিবাদ করায় মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় কয়েকজন যুবক দল বেঁধে ঘরে ঢুকে কাঁকলি মল্লিক (১৫) নামে এক হিন্দু স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গত শনিবার (২ জুন) রাতে কুলাউড়া থানায় মামলা করেছে ভুক্তভোগী মেয়েটির পরিবার।

মামলার এজাহার, পুলিশ ও স্কুলছাত্রীর স্বজনদের সূত্রে জানা গেছে, মেয়েটি কুলাউড়া পৌর বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে নবম শ্রেণিতে পড়ে। বেশ কিছু দিন ধরে রুবেল মিয়া (২৮) নামের প্রতিবেশী এক যুবক তাকে উত্যক্ত করে আসছিলো। মেয়েটির স্বজনেরা একাধিকবার রুবেলের পরিবারের সদস্যদের কাছে অভিযোগ করেও ফল পাননি। এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার মেয়ের ভাইয়ের সঙ্গে রুবেলের কথা-কাটাকাটি হয়। পরে মেয়ের স্বজনেরা স্থানীয় এক ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কাছে বিচার চান।

মেয়েটির পরিবারের অভিযোগ, গত শুক্রবার রাত আটটার দিকে রুবেল ও তাঁর ভাই জুয়েলের নেতৃত্বে চার-পাঁচ জন যুবক দেশীয় বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র নিয়ে মেয়েটির ঘরে ঢোকেন। এ সময় বিদ্যুৎ ছিল না। ঘরে শুধু মেয়ে ও তার মা ছিলেন। একপর্যায়ে ওই যুবকেরা মেয়েটির মুখে কাপড় গুঁজে জোর করে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে একটি অটোরিকশায় তুলে চলে যান। এ সময় মা বাধা দিলে তাঁকে লাথি মেরে মেঝেতে ফেলে দেওয়া হয়। পরে মেয়ের স্বজনেরা বিষয়টি পুলিশকে জানান। ওই দিন রাতে মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে রুবেল, রুবেলের ছোট ভাই জুয়েল মিয়া (২৫), তাঁদের মা রাবেয়া বেগম (৪২), বোন সীমা বেগম (২৬) ও একই এলাকার বাসিন্দা আছকর আলীকে (৩২) আসামি করে মামলা করেন।

গতকাল রোববার (৩ জুন) দুপুরে মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল কুলাউড়া থানায় যান। এ সময় মেয়ের স্বজনেরাসহ উপজেলা হিন্দু নেতৃবৃন্দ তাঁর সঙ্গে দেখা করেন। তাঁরা এসপির কাছে মেয়েটিকে দ্রুত উদ্ধারসহ ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান। এসপি এ ব্যাপারে তাঁদের আশ্বস্ত করেন।

মেয়েটির বাবা এ প্রতিবেদককে বলেন, তাঁর ছেলের সঙ্গে রুবেলের ঝগড়ার বিষয়টি সুরাহার জন্য ওয়ার্ড কাউন্সিলর ১ জুন রাত নয়টায় পৌরসভা কার্যালয়ে উভয় পক্ষকে হাজির থাকতে বলেন। এ কারণে ওই দিন রাতে পৌরসভা কার্যালয়ের উদ্দেশে রওনা দেন। এরই মধ্যে মেয়েকে অপহরণ করা হয়।

কুলাউড়া উপজেলা পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের সভাপতি অরবিন্দ ঘোষ ও সাধারণ সম্পাদক নির্মাল্য মিত্র বলেন, দ্রুত কাকলিকে উদ্ধার ও জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করা না হলে কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে। বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট মৌলভীবাজার জেলা শাখার সভাপতি এড. বিষ্ণু পদ ধর উক্ত অপহরণ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও ভিকটিমকে উদ্ধারের দাবী জানান।

কুলাউড়া থানার ওসি শামীম মুসা জানান, উক্ত ঘটনায় মামলার অন্যতম আসামী আছকর আলীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আমরা ভিকটিমকে উদ্ধারের পাশাপাশি জড়িতদের গ্রেপ্তারের জন্য বিভিন্নভাবে চেষ্টা চালাচ্ছি।

ওসি বলেন, রুবেল বখাটে প্রকৃতির। তাঁর বিরুদ্ধে চুরিসহ বিভিন্ন অভিযোগে থানায় মামলা রয়েছে।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.