১৯শে জুন, ২০১৮ ইং | ৫ই আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:২৭
ইনজুরিতে বিরাট কোহলি

আইপিএল শেষ করেই ইনজুরিতে বিরাট কোহলি

বিশেষ প্রতিবেদকঃ আইপিএল শেষ করেই কাউন্টি ক্রিকেট সারের পক্ষে খেলতে ইংল্যান্ড যাওয়ার কথা ছিল। সবকিছু পাকাপাকি হয়ে ছিল। কিন্তু মনে হয় যেতে পারছেন না ভারতের তিন সংস্করণের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ভারতের সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত বিভিন্ন প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে মেরুদণ্ডের সমস্যায় ভূগছেন (স্লিপড ডিস্ক) ভারতের এ অধিনায়ক।

বৃহস্পতিবার সকালে কোহলি মুম্বাইর এক অর্থোপেডিক সার্জনের কাছে যান। তিনি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখেন কোহলি মেরুদণ্ডের সমস্যায় ভূগছেন। অবশ্য এই সমস্যার জন্য তাকে অস্ত্রোপচার করাতে হবে না। তবে কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে গিয়ে যদি কোনোভাবে মেরুদণ্ডের টান খান তাহলে তাকে আরো বড় সমস্যায় পড়তে হতে পারে। সে কারণে, ডাক্তার তাকে কাউন্টি খেলতে যেতে এক প্রকার নিষেধ করেছেন। যাতে করে ভারতের ইংল্যান্ড সফর তিনি মিস না করেন। কোহলিকে তিনি বিশ্রামে থাকতে বলেছেন, নির্দিষ্ট কিছু ব্যায়াম করতে বলেছেন।

মুম্বাইয়ের খার হাসপাতালের সেই বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, মেরদণ্ডের ডিস্ক সরে গেছে কোহলির। যদিও অস্ত্রোপচারের দরকার নেই। তবে সেরে উঠতে লম্বা সময় লেগে যেতে পারে। এ মুহূর্তে তাকে পুরোপুরি বিশ্রামে থাকতে বলেছেন তিনি। টাইমস ইন্ডিয়া জানিয়েছে, কোহলির ইনজুরি গুরুতর। কতদিনের মধ্যে সেরে উঠবেন তা এ মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। আসন্ন ইংল্যান্ড সফরে টেস্ট সিরিজও মিস করতে পারেন তিনি।

তবে কোহলির ইনজুরির বিষয়ে ভারতের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রন বোর্ড কিংবা কোহলি নিজে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলেননি। কোন সমস্যা নিয়ে কোহলি ডাক্তারের কাছে গিয়েছিলেন সে বিষয়টিও জানা যায়নি। কেননা, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে সবগুলো ম্যাচই খেলেছেন কোহলি। অবশ্য তার দল এবার গ্রুপপর্ব পেরুতে পারেনি। তবে কোহলির পারফরম্যান্স খুব একটা খারাপ ছিল না। ১৪ ম্যাচে মাঠে নেমে তিনি ৫৩০ রান করেছেন। যেখানে তার গড় ৪৮.১৮। স্ট্রাইক রেট ১৩৯.১। ৫৩০ রান নিয়ে আইপিএলের চলতি আসরে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকদের তালিকায় ষষ্ঠ স্থানে রয়েছেন।

২০১৪ সালে ইংল্যান্ড সফর করেছিল ভারত। সেবার ৫ ম্যাচ টেস্ট সিরিজ ৩-১ ব্যবধানে হেরেছিল সফরকারীরা। ওই সিরিজে ৫ ম্যাচে মাত্র ১৩৪ রান করেছিলেন কোহলি। সেঞ্চুরি তো দূরে থাক, একটা হাফ সেঞ্চুরিও করতে পারেননি তিনি। সর্বোচ্চ রান ছিল ৩৯। দুইবার তো গোল্ডেন ডাক মেরেছিলেন। ২০১৪ সালের ইংল্যান্ড সফরটা কোহলির মতো একজন ব্যাটসম্যানের জন্য ছিল দুঃস্বপ্নের মতো। আইপিএলে শেষে আবারো ইংল্যান্ড সফরে যাবে কোহলি বাহিনী। এই সফরে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি, তিন ম্যাচ ওয়ানডে ও পাঁচ ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলবে ভারত। টেস্ট সিরিজ শুরু হবে ১ আগস্ট থেকে।

২০১৪ সালের মতো ২০১৮ সালের ইংল্যান্ড সফর যাবে দুঃস্বপ্নের মতো না হয় সে কারণে বিরাট কোহলি কাউন্টি ক্রিকেট খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। আইপিএল শেষ করেই ইংল্যান্ডে চলে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন। প্রথম কোনো ভারতীয় ক্রিকেটা হিসেবে সারের হয়ে খেলতে সব কিছুই প্রস্তুত। কিন্তু ইনজুরি শেষ পর্যন্ত তার সব পরিকল্পনায় জল ঢেলে দেয় কিনা কে জানে?

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.