রবিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২০, ০৮:১৭ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
মেহেরপুরের ভাষা সৈনিক নজির হোসেন বিশ্বাস আর বেঁচে নেই মেহেরপুরের বুড়িপোতা সীমান্ত ফাঁড়ির থেকে ১৫০ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার নবীগঞ্জ কেলিকানাইপুরে বার্ষিক লীলা সংকীর্তন মহোৎসব সম্পন্ন বুথ দখল করে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন(ইভিএম) এ জাল ভোট চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে জ্ঞানভিত্তিক সব কিছুই পরিবর্তন আসবে প্রযুক্তির মাধ্যমে -অর্থমন্ত্রী ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করেছে জিয়া, এরশাদ ও খালেদা জিয়ারা -নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী যাদের মা-বাপের ঠিক নেই তারাই কেন্দ্রীয় আইনের বিরোধিতা করছে -অশ্লীল আক্রমনে দিলীপ ভোলায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে চলছে জাটকা নিধনের মহোৎসব ভোলার চরফ্যাসনে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ২২ দোকান ভস্মিভূত দুদিন পিছিয়ে পহেলা ফেব্রুয়ারি ঢাকা সিটি নির্বাচন

বাড়ি যাওয়ার নাম করে স্ত্রীকে ৮জনের হাতে তুলে দিলেন ময়মনসিংহের রতন মিয়া

৮ জনের হাতে স্ত্রীকে দিলেন

ময়মনসিংহে মাজারে গানের অনুষ্ঠান দেখিয়ে স্ত্রীকে বাড়ি না নিয়ে অন্ধকার রাতে একটি নির্জন বাড়িতে নিয়ে যান স্বামী রতন মিয়া। সেখানে কয়েকজন আগুন পোহাচ্ছিল। নির্জন বাড়িটিতে নিয়ে রতন মিয়া তার স্ত্রীকে সেই আগুন পোহানো লোকদের কাছে তুলে দেন।এরপর রাতভর পাশবিক নির্যাতন চালানো হয় রতনের স্ত্রীর ওপর। গণধর্ষণের এমন ঘটনা ঘটেছে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের এনায়েতনগর গ্রামে।

রতন মিয়া (৩০) এনায়েতনগর গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে। তিনি স্থানীয় গ্রাম পুলিশের সদস্য। মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বিকেলে রতন মিয়ার সঙ্গে ঈশ্বরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসের পেছনে বাসায় গৃহপরিচারিকার কাজ খুঁজতে যান স্ত্রী। কোনও বাসায় কাজ না পেয়ে স্বামীর সঙ্গে বাড়ি ফিরে যাওয়ার জন্য ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেল দিয়ে জাটিয়া ইউনিয়নের শিমুলতলী মোড়ে  আসেন। রতন বাড়িতে না গিয়ে স্ত্রীকে নিয়ে শিবপুর এলাকায় দরগায় গান শুনতে নিয়ে যান।

গান শুনে রাত ১১টার দিকে হেঁটে বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার জন্য তারা রওনা হয়। রাস্তা দিয়ে না গিয়ে ক্ষেতের মাঝখান দিয়ে জাটিয়া ইউনিয়নের চরপাড়া গ্রামের বাবু মিয়ার একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে স্ত্রীকে নিয়ে যায় রতন। সেখানে গিয়ে স্ত্রীকে মারধর শুরু করে।  পরে সেখানে অপেক্ষমাণ কয়েকজনের হাতে তুলে দেয় তাকে। পরে সকালে গণধর্ষণের শিকার গৃহবধূ থানায় গিয়ে হাজির হন।পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান শুরু করে।

বিকেলে আটক করা হয় প্রধান অভিযুক্ত রতন ও সরিষা ইউনিয়নের লংগাইল গ্রামের আবদুস সোবহানের ছেলে নজরুল ইসলামকে। ঈশ্বরগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জয়নাল আবেদীন বলেন, গণধর্ষণের ঘটনার এমন খবর পেয়ে স্বামীসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান চলছে।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দি নিউজ এর বিশেষ প্রকাশনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি
IT & Technical Support: BiswaJit